ডিজিটাল খিচুড়ি চ্যালেঞ্জ

চ্যালেঞ্জ-এর সার-সংক্ষেপ

ইন্টারনেট অরাজকতা ডিজিটাল স্পেসে নারীদের অনিরাপত্তা ও বিপদ ডেকে আনছে। যদিও হয়রানি ও অপব্যবহার কমাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যেমন ফেসবুক, টুইটার, ইন্সটাগ্রাম বাংলাদেশের অগ্রগতি কম নয়। ডিকেসির এবারের পর্বে তারুণ্যকে সম্পৃক্ত করে অনলাইনে আক্রমণ ও হয়রানির কবল থেকে নারীদের মুক্তির ব্যাপারে সমাধান খুঁজবো আমরা। নারীদের মানসিক ও শারীরিক নির্যাতনের কারণগুলো চিহ্নিত করে একটি শান্তিপূর্ণ, সহনশীল ও সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়ার প্রচেষ্টা অব্যহত রাখাই লক্ষ্য

চ্যালেঞ্জ

নারীদের রোজ ডিজিটাল স্পেস ছেঁড়ে যাওয়ার প্রধান কারণ সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে উত্যক্ত করা ও হয়রানি। পুরুষতান্ত্রিক সমাজের আচরণগত দিকগুলো পরিবর্তনের জন্য কিভাবে আমরা সুশিক্ষা বিনিময় করতে পারি? নারীর জন্য একটি নিরাপদ ডিজিটাল স্পেস তৈরিতে আমাদের উপায়গুলো কি হবে?

আপনার আইডিয়ার মধ্যে আমরা কি খুঁজছি?

নিচের বিষয়গুলি বিবেচনায় রেখে সমাধান তৈরি করতে হবে। আইডিয়ায় যা যা থাকতে পারে-

  • ক) অনলাইনে নারী হয়রানি প্রতিরোধ খ) এমন নেটওয়ার্ক তৈরি করা যা হয়রানির থামাতে নারী সহায়ক গ) এমন কোন সিস্টেম তৈরি যা অপরাধীদের সনাক্ত করে তাঁদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ায় সহায়ক
  • নারী উত্যক্তকারীদের ট্রল, গালাগাল, হীন-মন্তব্য, ব্ল্যাকমেইলিং ঠেকাতে আপনার ক্যাম্পেইন অথবা প্রজেক্টে এমন কিছু থাকতে হবে যা এক সমতার পরিবেশ নির্মাণে সহায়তা করবে
  • ক্যাম্পেইন/ প্রজেক্টটির লক্ষ্য অনলাইনে নারী হয়রানির বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরি
  • আপনার ক্যাম্পেইন/ প্রজেক্টটিকে অবশ্যই বাস্তবধর্মী এবং কার্যকরী হওয়ার পাশাপাশি ব্যক্তিগত, দলগত কিংবা জাতীয় পর্যায়েও ব্যবহারোপযোগী হতে হবে
  • আপনার ক্যাম্পেইনে/ প্রজেক্টে নারী কিভাবে অনলাইনে উপকৃত হবে সেটার পাশাপাশি এর সম্ভাব্য ফলাফল এর উল্লেখ থাকতে হবে
  • আপনার এই ক্যাম্পেইন/ প্রজেক্ট কিভাবে সুদূরপ্রসারী প্রভাব রাখবে সে ব্যাপারে পরিস্কার ধারণা প্রদান করতে হবে। এই ইস্যুকে মোকাবেলা করার জন্য যেকোন চলমান প্রজেক্ট অথবা নতুন ক্য্যাম্পেইন থেকে প্রাপ্ত গবেষণা আপনাদের আইডিয়াকে আরও সমৃদ্ধ করবে। তথ্য /উপাত্তের মাধ্যমে উপস্থাপিত যেকোন প্রজেক্ট তার প্রভাব রাখতে সক্ষম এবং তার সফল হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি।

এই তালিকা দেখে আপনাদের আইডিয়াগুলোকে সীমাবদ্ধ করবেন না। আমরা চাই, আপনাদের আইডিয়াগুলো আপনাদের মতোই অনন্য ও সৃজনশীল হোক।